National News

নারায়ণগঞ্জের রূপসী এলাকার করুণ যোগাযোগ ব্যবস্থাপনা

রাজধানী ঢাকার পূর্ব সীমানায় শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে গড়ে উঠা জনপদ নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলা। ভৌগোলিক ভাবে এ উপজেলার উত্তরে গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলা ও নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলা, পশ্চিমে রাজধানী ঢাকার ডেমরা, সবুজবাগ ও গুলশান থানা। আর এই রূপগঞ্জ উপজেলারই এক অঞ্চলের নাম রূপসী। বেশ কিছু বছর ধরেই এ এলাকার করুণ যোগাযোগ ব্যবস্থাপ নারায়ণগঞ্জের রূপসী এলাকার করুণ যোগাযোগ ব্যবস্থাপনা !!
রাজধানী ঢাকার পূর্ব সীমানায় শীতলক্ষ্যা নদীর তীরে গড়ে উঠা জনপদ নারায়ণগঞ্জ জেলার রূপগঞ্জ উপজেলা। ভৌগোলিক ভাবে এ উপজেলার উত্তরে গাজীপুর জেলার কালীগঞ্জ উপজেলা ও নরসিংদী জেলার পলাশ উপজেলা, পশ্চিমে রাজধানী ঢাকার ডেমরা, সবুজবাগ ও গুলশান থানা। আর এই রূপগঞ্জ উপজেলারই এক অঞ্চলের নাম রূপসী। বেশ কিছু বছর ধরেই এ এলাকার করুণ যোগাযোগ ব্যবস্থাপনার জন্য এলাকাবাসীদের পোহাতে হচ্ছে ব্যাপক দুর্ভোগ। এলাকাবাসীরা নিকটবর্তী রূপসী বাসস্ট্যান্ড এবং বাহিরের সাথে যোগাযোগের জন্য যে রাস্তাটি ব্যবহার করে তা বলতে গেলে বেশ সংকীর্ণ এবং ক্ষতিগ্রস্ত। বলতে গেলে বর্তমানে এই রাস্তা ব্যবহারের জন্য একেবারেই অব্যবহারযোগ্য। কিন্তু এরপরও এলাকাবাসীরা নিরুপায় হয়ে ব্যবহার করছে এই যোগাযোগ ব্যবস্থাপনাটি যেহেতু এর বিকল্প আর কোন পথ নেই। এর ফলে প্রায়শই এলাকাবাসীদের কোন না কোন বিপদের সম্মুখীন হতে হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থাপনাটি ব্যবহারের সময়। বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ কিছু ভোগ্যপণ্যের প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানা ছাড়াও আরো কিছু বাণিজ্যিক স্থাপনা গড়ে উঠেছে এই রাস্তাকে ঘিরে। একই সাথে এই রাস্তা ধরে বিভিন্ন পণ্যবাহী যান দৈনন্দিন যাতায়াত করে জনগণের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহের কার্যে। রাস্তায় এরকম দুর্দশার অবস্থার কারণে এসব পণ্যবাহী যান এবং পণ্যসামগ্রী উভয়ই বিপুল ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। সেই সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থাপনার রাস্তাটি অত্যন্ত সংকীর্ণ হবার কারণে দীর্ঘ সময় ধরে এসব পণ্যবাহী যানগুলোকে এবং এলাকাবাসীদেরকে অপেক্ষা করতে হয় তাদের গন্তব্যে যাওয়ার জন্য। এমতাবস্থায় রূপসীবাসীদের সরকারের কাছে বিনীত অনুরোধ তারা যেন এলাকাবাসীদের এই দুর্ভোগ এর ব্যাপারটিকে বিবেচনায় নেন এবং অতিশীঘ্রই এ ব্যাপারে জরুরি ব্যবস্থা নেন। নার জন্য এলাকাবাসীদের পোহাতে হচ্ছে ব্যাপক দুর্ভোগ। এলাকাবাসীরা নিকটবর্তী রূপসী বাসস্ট্যান্ড এবং বাহিরের সাথে যোগাযোগের জন্য যে রাস্তাটি ব্যবহার করে তা বলতে গেলে বেশ সংকীর্ণ এবং ক্ষতিগ্রস্ত। বলতে গেলে বর্তমানে এই রাস্তা ব্যবহারের জন্য একেবারেই অব্যবহারযোগ্য। কিন্তু এরপরও এলাকাবাসীরা নিরুপায় হয়ে ব্যবহার করছে এই যোগাযোগ ব্যবস্থাপনাটি যেহেতু এর বিকল্প আর কোন পথ নেই। এর ফলে প্রায়শই এলাকাবাসীদের কোন না কোন বিপদের সম্মুখীন হতে হচ্ছে যোগাযোগ ব্যবস্থাপনাটি ব্যবহারের সময়। বাংলাদেশের প্রসিদ্ধ কিছু ভোগ্যপণ্যের প্রক্রিয়াজাতকরণ কারখানা ছাড়াও আরো কিছু বাণিজ্যিক স্থাপনা গড়ে উঠেছে এই রাস্তাকে ঘিরে। একই সাথে এই রাস্তা ধরে বিভিন্ন পণ্যবাহী যান দৈনন্দিন যাতায়াত করে জনগণের নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্য সরবরাহের কার্যে। রাস্তায় এরকম দুর্দশার অবস্থার কারণে এসব পণ্যবাহী যান এবং পণ্যসামগ্রী উভয়ই বিপুল ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে। সেই সাথে যোগাযোগ ব্যবস্থাপনার রাস্তাটি অত্যন্ত সংকীর্ণ হবার কারণে দীর্ঘ সময় ধরে এসব পণ্যবাহী যানগুলোকে এবং এলাকাবাসীদেরকে অপেক্ষা করতে হয় তাদের গন্তব্যে যাওয়ার জন্য। এমতাবস্থায় রূপসীবাসীদের সরকারের কাছে বিনীত অনুরোধ তারা যেন এলাকাবাসীদের এই দুর্ভোগ এর ব্যাপারটিকে বিবেচনায় নেন এবং অতিশীঘ্রই এ ব্যাপারে জরুরি ব্যবস্থা নেন।

পাঠকের মতামত:
Show More
Back to top button