Miscellaneous News

কুরিয়ার ভ্যানে পার্সেলের বদলে এলো মানুষ! অতঃপর…

পার্সেলের বদলে এলো মানুষ- প্রা’ণঘা তি করোনা ভাইরা স সং ক্রমণ রোধে বন্ধ হচ্ছে সব ধরনের গণপরিবহন। এরই মধ্যে ২৬ মার্চ থেকে ৪ এপ্রিল পর্যন্ত সাধারণ ছুটিও ঘোষণা করেছে সরকার। মানুষজনকে ঘরব ন্দি করতে মাঠে নেমেছে প্রশাসনের একাধিক টিম। তারপরও ঠেকানো যাচ্ছে না রাজধানী ছেড়ে আসা মানুষের স্রোত।

বাস-ট্রেন না পেয়ে বুধবার বিকেলে পার্সেল সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান আহমেদ কুরিয়ারের ভ্যানে চেপে রাজশাহী ফিরেছে মানুষ। এ কা’ণ্ডে প্রতিষ্ঠানটিকে এক লাখ টাকা জরি’মানা করেছে ভ্রাম্যমাণ আ দালত। জেলা প্রশাসনের সিনিয়র সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট লসমী চাকমা এ দ’ণ্ড দেন। একই সঙ্গে পরবর্তী নির্দেশ না দেয়া পর্যন্ত আহমেদ পার্সেল সার্ভিসের সব কার্যক্রম বন্ধ রাখার নির্দেশ দেয়া হয়।

অবশেষে ৭৭৭ দিন পর মুক্তি পেলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া। বয়স বিবেচনায় শর্ত সাপেক্ষে তাকে মুক্তি দিয়েছে সরকার। বুধবার বিকেলে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডি কেল বিশ্ববিদ্যালয় (বিএসএমএমইউ) হাস পাতাল থেকে ৬ মাসের জামিনে মুক্তি পান খালেদা জিয়া।

তার দ’ণ্ডের কার্যকারিতা স্থগিত করে মুক্তির আদেশের নথি প্রধানমন্ত্রীর দপ্তর, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও কারা কর্তৃপক্ষের হাত ঘুরে বিকেল ৩টার পর বঙ্গবন্ধু মেডি কেল বিশ্ববিদ্যালয় হাস পাতালে পৌঁছায়। পরে বিকেল সোয়া ৪টার দিকে হাস পাতাল থেকে বের করে আনা হয় খালেদা জিয়াকে।

বঙ্গবন্ধু মেডি কেল থেকে খালেদা জিয়াকে সরাসরি তার গুলশানের বাসায় নিয়ে যাওয়া হয়। এর আগে দুপুরে খালেদা জিয়াকে আনতে বিএসএমএমইউতে যান তার পরিবারের সদস্য এবং বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরসহ বিএনপি নেতারা।

এদিকে, খালেদা জিয়াকে এক নজর দেখতে বঙ্গবন্ধু মেডি কেলের সামনে ভিড় করেন শত শত মানুষ। করোনাভাইরা সের সং ক্রমণ ঠেকাতে খালেদা জিয়াকে বের করার আগে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুলসহ আ ইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্যরা তাদের সরানোর চেষ্টা করেন।

জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট ও জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নী তি মা মলায় ১৭ বছরের কা রাদ’ণ্ড নিয়ে ২০১৮ সালের ৮ ফেব্রুয়ারি থেকে কারাব ন্দী ছিলেন খালেদা জিয়া। তাকে পুরান ঢাকার পরিত্যক্ত কেন্দ্রীয় কা রাগারে বিশেষ কা রাগার স্থাপন করে রাখা হয়। গত বছরের এপ্রিল থেকে তিনি বিএসএমএমইউতে চিকিৎ সাধীন ছিলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে খালেদা জিয়ার পরিবারের সদস্যদের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে দুটি শর্তে তাকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেয় সরকার। গতকাল মঙ্গলবার বেলা সাড়ে ৩টায় আ ইনমন্ত্রী আনিসুল হক সংবাদ সম্মেলনে সরকারের এ সিদ্ধান্তের কথা জানান।

তিনি জানান, দুর্নী তি মা মলায় দ’ণ্ডিত বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার দ’ণ্ড ছয় মাসের জন্য স্থগিত করে তাকে দুই শর্তে মুক্তি দেওয়া হচ্ছে। ফৌজদারি কার্যবিধির ৪০১-এর উপধারা ১ ধারা অনুযায়ী বয়সের বিষয়টি বিবেচনায় রেখে মানবিক কা রণে সরকার এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। মুক্তিকালীন খালেদা জিয়াকে ঢাকায় তার নিজ বাসায় থেকে চিকিৎ সা নিতে হবে। তিনি বিদেশ যেতে পারবেন না।

পরে আজ বুধবার দুপুরে সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেন, ‘মানবিক বিবেচনায় খালেদা জিয়াকে মুক্তি দেওয়ার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। তিনি তার ছোট ভাইয়ের জিম্মায় থাকবেন। এ সময় তিনি কেন রাজনীতি করবেন?’

পাঠকের মতামত:
Back to top button