International News

এবার চীনের আত ঙ্ক ‘হন্তা ভা ইরাস’, প্রা’ণ হা রাতে পারে শয়ে শয়ে মানুষ

এবার চীনের আত ঙ্ক- করো’না ভা ইরাসে প্রভাব যখন বিশ্বব্যাপী তখন নতুন ভা ইরাসের আবির্ভাব দেখা দিলো চীনে। নতুন এ ভা ইরাসের নাম হন্তা ভা ইরাস। বিশেষজ্ঞরা বলছেন এ ভা ইরাস নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে এটাও করো’নার মতো মহামা রী রূপ নিতে পারে। মা রা যেতে পারে শয়ে শয়ে লোক। সোমবার চীনের ইউন্নান প্রদেশে হন্তা ভা ইরাসের আ ক্রান্ত হয়ে মৃ ত্যু হয়েছে এক জনের। একটি বাসে ফিরছিলেন ওই ব্যক্তি। ওই বাসের ৩২ জনের নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।

চীনের সরকারি সংবাদমাধ্যম গ্লোবাল টাইমসের খবরে বলা হয়েছে, ‘শেনডং প্রদেশ থেকে ইউন্নান প্রদেশে যাওয়ার পথে একটি বাসে মৃ ত্যু হয়েছে এক ব্যক্তির। হন্তা ভা ইরাসে আ ক্রান্ত হয়েছিলেন ওই ব্যক্তি। বাকি ৩২ জন যাত্রীর নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে।’

সেন্টার ফর ডিজিজ কন্ট্রোল অ্যান্ড প্রিভেনশন অনুযায়ী, করো’না ভা ইরাসের পরিবারের অন্তর্ভূক্ত হন্তা ভা ইরাস। ইঁদুর ও কাঠবেড়ালিদের শ রীরে থাকে এটি। আ ক্রান্ত হলে হতে পারে জ্বর, বমি, পেটে ব্যা থা, শুকনো কাশি ও শ্বাসপ্রশ্বাসের সমস্যা। এদিকে করো’না ভা ইরাস বিশ্বের ১৯৫টি দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়েছে।

এখন পর্যন্ত এই প্রা’ণঘা তী ভা ইরাসে আ ক্রান্তের সংখ্যা ৩ লাখ ৭৮ হাজার ৮৪৮ এবং মা রা গেছে ১৬ হাজার ৫১৪ জন। অপরদিকে চিকিৎ সা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ১ লাখ ২ হাজার ৬৯ জন। করো’না ভা ইরাসে এখন পর্যন্ত সবচেয়ে বেশি মৃ ত্যুর ঘটনা ইতালিতে। ইউরোপের এই দেশটিতে মৃ ত্যুর মিছিল থামছেই না। গত ২৪ ঘণ্টায় দেশটিতে নতুন করে ৬০১ জনের মৃ ত্যু হয়েছে। এ নিয়ে সেখানে মৃ ত্যু ৬ হাজার ৭৭।

দেশটিতে নতুন করে করো’নায় আ ক্রান্তের সংখ্যা ৪ হাজার ৭৮৯। ফলে এখন পর্যন্ত মোট আ ক্রান্তের সংখ্যা ৬৩ হাজার ৯২৭। এছাড়া চিকিৎ সা শেষে সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছে ৭ হাজার ৪৩২ জন।

এখন পর্যন্ত করো’না ভা ইরাসে সবচেয়ে বেশি মানুষ আ ক্রান্ত হয়েছে চীনে। দেশটিতে মোট আ ক্রান্তের সংখ্যা ৮১ হাজার ১৭১ এবং মা রা গেছে ৩ হাজার ২৭৭ জন। অপরদিকে যুক্তরাষ্ট্রে এখন পর্যন্ত আ ক্রান্তের সংখ্যা ৪৩ হাজার ৭৩৪ এবং মা রা গেছে ৫৫৩ জন। স্পেনে আ ক্রান্তের সংখ্যা ৩৫ হাজার ১৩৬ এবং মা রা গেছে ২৩১১ জন। জার্মানিতে আ ক্রান্ত ২৯ হাজার ৫৬ এবং মৃ ত্যু ১২৩। ইরানে আ ক্রান্তের সংখ্যা ২৩ হাজার এবং মা রা গেছে ১৮১২ জন।

ফ্রান্সে মোট আ ক্রান্ত ১৯ হাজার ৮৫৬ এবং মা রা গেছে ৮৬০ জন। দক্ষিণ কোরিয়ায় মোট আ ক্রান্ত ৮ হাজার ৯৬১ এবং মৃ ত্যু ১১১। সুইজারল্যান্ডে আ ক্রান্তের সংখ্যা ৮৭৯৫ এবং মৃ ত্যু ১২০, যুক্তরাজ্যে আ ক্রান্ত ৬৬৫০ এবং মৃ ত্যু ৩৩৫, কানাডায় আ ক্রান্ত ২০৯১ এবং মৃ ত্যু হয়েছে ২৪ জনের।

পাঠকের মতামত:
Back to top button